article.title
 Togumogu
 Sep 3, 2019
 48
ADHD এর লক্ষণ ও উপসর্গ

 ADHD কি? Attention deficit hyperactivity disorder (ADHD) হল এমন একটি অবস্থা যা হলে শিশুরা তাদের কার্যকলাপ বা আবেগ ধরে রাখতে পারে না। এই ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত শিশুদের পক্ষে কোন একটি জিনিসে মনোযোগ ধরে রাখাও কষ্টকর হয়ে পড়ে। এর সুত্রপাত হতে পারে শৈশবকাল থেকেই, যা বয়ঃসন্ধিকাল কিংবা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরও মানুষের মধ্যে থেকে যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে শিশুর বয়স ৪ বছর না হওয়া পর্যন্ত এই ডিসঅর্ডারের চিকিৎসা করা সম্ভব না। কারণ একেক বাচ্চা একেক রকম হয়। শৈশবকালে বাচ্চাদের মধ্যে চঞ্চলতাভাবটি বেশি কাজ করে। তাই আপনার শিশুর অতিরিক্ত অস্থিরতা বা চঞ্চলতা কি বয়সের কারণে নাকি এটেনশন ডেফিসিট হাইপারঅ্যাক্টিভিটি ডিসঅর্ডারের কারণে সেটা বুঝতে পারা আসলেই কঠিন কাজ। কিন্তু এটি অসম্ভব নয়। আপনার শিশু একটু বড় হলেই ব্যাপারটি আপনার কাছে পরিষ্কার হওয়া।


ADHD এর লক্ষনঃ

একেক শিশুর মধ্যে ADHD আবির্ভাব একেক রকম হতে পারে। বিশেষজ্ঞরা একে তিনটি বিশেষ রূপে ভাগ করেছেন-

১. Inattentive ADHD (আগে ADD নামে পরিচিত ছিল),

২. Hyperactive Impulsive ADHD এবং

৩. Combined ADHD (অর্থাৎ শিশুর মধ্যে Inattentive এবং Hyperactive Impulsive সিমটম দুটোই কাজ করবে)।


অন্যমনস্ক বা Impulsive ADHD থাকার লক্ষনঃ

 ১. এই ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত শিশুরা ডে ড্রিম বেশি করে। অন্য কথায় যাকে বলে আকাশ কুসুম বেশি চিন্তা করা। খুব অল্প সময়েই তারা মনোযোগ হারিয়ে ফেলে।

২. Instruction বুঝতে করতে তাদের সমস্যা হয়।

৩. তারা খুবই অগোছালো প্রকৃতির হয়।

৪. প্রায় সময়ই কিছু না কিছু জিনিস হারিয়ে ফেলে।

৫. প্রচণ্ড ভুলো মন স্বভাবের হওয়া।

৬. মাথা খাটানোর প্রয়োজন পরে এ ধরনের কাজ করতে না চাওয়া।

৭. দ্রুত এবং সঠিকভাবে তথ্য বোঝার অক্ষমতা। 

৮. সম্পূর্ণ প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করার আগেই তারাহুড়ো করে উত্তর দেয়া।

৯. ধৈর্যশীলতার অভাব।

১০. লাইনে দাঁড়ানো বা নিজের পালা আসার জন্যে অপেক্ষা না করতে পারা।

১১. কোন ধরনের চিন্তা না করে কাজ করা।

১২. নিজের আবেগকে ধরে না রাখতে পারা।

১৩. অন্যদের কাজে বাঁধা দেয়া।


Hyperactivity এর লক্ষনঃ

 ১. যেসব শিশুদের এই ADHD থাকে তারা কখনই স্থির হয়ে থাকতে পারে না অর্থাৎ সব সময়ই কিছু না কিছু করার জন্যে ছটফট করে।

২. বেশি কথা বলার প্রবণতা।

৩. খেলার সময় অনেক চিল্লাচিল্লি করা।

৪. অনুপযুক্ত সময় হঠাৎ এমন কাজ করা যা তার উচিৎ নয়। 

উপরে বর্ণিত বেশিরভাগ লক্ষনের সাথে আপনার শিশুর মিল থাকতেই পারে। তাই বলে এটা চিন্তা করবেন না যে আপনার শিশুর ADHD আছে। কিন্তু হ্যাঁ, আপনার যদি মনে হয় তার বয়সী অন্য বাচ্চাদের তুলনায় তার মধ্যে এই লক্ষন গুলি একটু বেশিই দেখা যাচ্ছে তাহলে ডাক্তারের পরামশ অন্য কোন সমস্যার কারণে কি ADHD দেখা দিতে পারে? হ্যাঁ। শিশুর যদি শ্রবণশক্তি বা দৃষ্টিশক্তিতে সমস্যা, শেখার অক্ষমতা বা কোন মানসিক চাপ থেকে থাকে তাহলে তাদের মধ্যে এই উপসর্গগুলি দেখা দিতে পারে।


কেন শিশুদের ADHD হয় এর কারণ যেকোনো কিছু হতে পারে। কোন কোন গবেষক বলেন এটি জেনেটিক। তাদের মতে পরিবারে যদি একজন সন্তানের ADHD থেকে থাকে তাহলে তার পরবর্তী ভাইবোনেরও তা হওয়ার সম্ভাবনা ২০% থেকে ২৫%। আবার কোন কোন গবেষকদের মতে এটি শিশুদের জিনগত কিছু সমস্যা থেকে সৃষ্টি হতে পারে। শিশুদের ব্রেনের টিস্যু যদি খানিকটা পাতলা হয়ে থাকে তাহলে সেটি বাচ্চাদের মনোযোগে সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। কিন্তু বাচ্চাদের ব্রেনের এই টিস্যু সমস্যা স্থায়ী নয়। সে বড় হওয়ার সাথে সাথে টিস্যুগুলি মোটা হতে থাকে এবং এই রোগের সিন্টমগুলির ধীরে ধীরে চলে যায়। রিসার্চে দেখা গেছে যে, খাদ্যে প্রিজারভেটিভ কিংবা ফুড কালারিং শিশুর ADHD হওয়ার সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে দেয়। এছাড়াও প্রেগনেন্সির সময় মায়ের সিগারেট বা মাদক সেবনও শিশুর ADHD হওয়ার সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে দেয়। 


মা ও শিশু স্বাস্থ্য এর জন্য রয়েছে আমাদের Parent & Child Counseling সহ আরও অনেক সার্ভিস। সেগুলো জানতে ভিসিট করুন https://togumogu.com/en/parenting-services



Related Articles
Please Come Back Again for Amazing Articles
Related Products
Please Come Back Again for Amazing Products
Tags